Dreams and thoughts

বিবেকের কাছে প্রশ্ন

একটা প্রশ্ন মাথায় অনেক দিন যাবত ঘুরছে , “আমরাই কি আমাদের ক্ষতি করছি না ?”
অনেকেই হয়তো আমার এই প্রশ্ন শুনে হতবাক হবে। কিন্তু একটু গভীর ভাবে চিন্তা করলে  দেখতে পারবেন  আসলে আমরাই আমাদের জন্য কিভাবে কাল হয়ে দাড়াই ।


১) ট্রাফিক আইন — বিভিন্ন সড়কে দুর্ঘটনা ঘটে থাকে প্রায়শই, এর মূল কারন কিন্তু আমরাই । রাস্তায় চলাচলের জন্য আমরা ট্রাফিক আইন মানাকে মনে করি বাচ্চাদের কাজ। বড় হয়ে গেছি তাই ট্রাফিক আইন মানি না আর তার ফল কিন্তু আমরা পাচ্ছি, ‘সড়ক দুর্ঘটনা’ । কি এমন হয়ে যায় একটু ট্রাফিক আইন মেনে চললে, হয়তবা সময় একটু বেশি লাগবে। তাতে কি বিরাট ক্ষতি হয়ে যায় আমাদের ? জীবনের মূল্য কি সময়ের চেয়ে বেশি  নয় ?

২) ফুটপাথ দখল — আমি যখন রাস্তা দিয়ে হাটি সবচেয়ে যে জিনিসটা আমাকে বিব্রিত করে তা হলো আমাকে বাধ্য হয়ে রাস্তার উপর দিয়ে হাঁটতে হয়। এমন নয় যে আমি যে রাস্তা দিয়ে হাটি তাতে ফুটপাথ নেই। কিন্তু ফুটপাথের বেশিরভাগটাই দখল হয়ে গেছে। এক সময় দেখতাম বাণিজ্যিক এলাকার ফুটপাথ দখল হতো , কিন্তু আজকাল আবাসিক এলাকার আশপাশের ফুটপাথ ও দখল হচ্ছে। যে যার মতো ফুটপাথ দখল করতেছে । নিজের বাসার সামনের ফুটপাথ দখল করতেসে সবাই। কেউ ফলের দোকান দিয়ে আবার কেও বা ইট বালু রেখে। আমার প্রশ্ন হলো এই রকম যদি ফুটপাথ দখল হয়ে যায় তাহলে আমরা সাধারণ মানুষ হাঁটব কোন রাস্তা দিয়ে। আমরা কি রাস্তার মাজখান দিয়ে হাঁটব আর গাড়ির তলে পরে মারা যাব ?

৩) বহুতল ভবন নির্মাণ — একটা জিনিষ আশপাশে  লক্ষ করলে দেখা যায় , আর তা হল প্রচুর বহুতল ভবন নির্মাণ হচ্ছে। কিন্তু এই বহুতল ভবন নির্মাণ করার সময় ভবনের মালিকপক্ষ কি পরিমান কৃপণতা করে তা কিন্তু বাইরে থেকে দেখা যায় না। আমার বাসার সামনে একটা ভবন ( ভবিষ্যতের বেসরকারি হাসপাতাল ) নির্মাণ কাজ চলতেছে। সেইখানে একদিন দেখি তারা ভবনের সঙ্কটকালিন সিঁড়ি (emergency exit) তৈরি করতেছে, কিন্তু আশ্চর্যের বিষয় সিঁড়ির প্রস্থ হবে সর্বোচ্চ ১-১.৫ ফুট। আমার প্রশ্ন হল বিপদের সময় এই চিপা সিঁড়ি দিয়ে মানুষ( বিশেষ করে রোগী ) কিভাবে বের হবে ?  এটা যে শুধু এই ভবনে হচ্ছে তা না, আজকাল সকল বহুতল ভবন নির্মাণের সময় জায়গা বাঁচানর নামে এই রকম ভাবে সিঁড়ি চিপা করে ফেলে। এই রকম সিঁড়ি বাস্তবে আমাদের বিপদে শত্রু হয়ে দাড়ায়। এই ভাবে কি আমরা আমাদের নিজের ক্ষতি করতেছি না ?

এইখানে তো শুধু তিনটা উদাহরণ দিলাম। এই রকম আরও অনেক ঘটনাই আমরা করি যা আমাদের বিপদকে দেকে নিয়ে আসে। সবার কাছে আমার অনুরোধ রইল, একটু চিন্তা করে দেখুন… আমরা কি পারি না আমাদের এই ছোট খাট ভুলগুলো শুধরে নিয়ে আমাদের জীবনকে আরও একটু সুন্দর করে সাঁজাতে।

Leave a Reply

%d bloggers like this: